দৈনিক সময়ের বার্তা, স্টাফ রিপোর্টারঃ

১৩ জুলাই ২০২০ তারিখ সমবার দুপুর আড়াইটার দিকে সাটুরিয়া উপজেলার তিল্লি ইউনিয়নের বোবার মোর এলাকায় মৃত আমিন মীরের পুত্র স্থানীয় যুবলীগ নেতা ও পল্টী মুরগী ব্যবসায়ী তজুমুদ্দিন মীর (৩৫) এর উপর অতর্কিত হামলার ঘটনা ঘটে।হামলা কারী রবিন (২০) ও তার বাবা শওকত আলীর নেতৃত্বে স্থানীয় বিএনপি নেতা ইয়ার চাঁনের পুত্র নাজমুল (২২) ও আজিবুর রহমানের পুত্র আতিক হাসান (২৫) দেশি অস্ত্রসস্ত্র দ্বারা হামলা করেন।

হামলার শিকার যুবলীগ নেতা তজুমুদ্দিন মীর বলেন, রবিন দির্ঘ দিন যাবৎ এলাকায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পরিচয়ে মাদক ব্যবসা ও সেবন করত। বিষয় টি আমাদের এলাকার মুরুব্বীদের নজরে আসলে তাদের পক্ষথেকে আমরা যুবলীগের নেতারা তাদরে এসব বিষয় থেকে বিরত থাকার কথা বললে তারা আমার ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে আজ হঠাৎ করেই আমাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হামলা করেন। এলাকার লোক জন আমার চিৎকার শুনে ছুটে আসলে তারা আমার কাছে থাকা ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানের ৫৫৭২০/= টাকা ও একটি মোবাইল নিয়ে দ্রুতো এলাকা ত্যাগ করে।তিনি আরো বলেন আমি সাটুরিয়া থানায় একটি অভিযোগ পত্র জমা করেছি, প্রশাসনের কাছে সঠিক তদন্ত সাপেক্ষ অভিযুক্তদের উপযুক্ত বিচার দাবি জানাই।

তিল্লি ইউ.পি ছাত্রলীগের কথিত সাধারণ সম্পাদক রবিন ও তার কমিটির ব্যপারে জানতে চাইলে সাটুরিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মওলা সময়ের বর্তাকে বলেন, তিল্লি ইউনিয়নে ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বৈধ্য কোন কমিটি নাই, ২০১৮ সালে আমার সাক্ষর ব্যতিত একটি কমিটি প্রকাশিত হয় রবিন সেই কমিটির নেতা। তবে ছাত্রলীগ পরিচয়ে কেউ অপরাধ করলে তার দায়ভার কখনই সংঠন নিবে না।

এই ব্যাপারে সাটুরিয়া থানার সাব ইনেসপেক্টর মোঃ শফিকুল ইসলামরে সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন বিষয় টি আমার জানতে পেরেছি তদন্ত সাপেক্ষ আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন