বুধবার, ১৪ এপ্রিল ২০২১, ১০:১১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আগৈলঝাড়ায় সর্বাত্মক কঠোর লকডাউন পালিত- ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা। মানবিক বাংলাদেশ সাপাহার উপজেলা শাখার মাস্ক বিতরন। টাংগাইলের সফল নারী উদ্যোক্তা “পল্লবী পাল” তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় পরিষদের অভিষেক সম্পন্ন আগৈলঝাড়ায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত। নড়াইলে ব্যবসায়ীকে গুলির ঘটনায় জড়িত আরো এক আসামী গ্রেফতার বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় (পঞ্চম শ্রেণি) লালমনিরহাটে অন লাইনে সাংবাদিক দের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের পরিচিতি সভা সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ সেন্ট্রাল অক্সিজেন সরবরাহের উদ্বোধন টুঙ্গিপাড়ায় বাবুল শেখের মাস্ক বিতরণ। দেশবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে মাঠে আছেন- টিপু কলোড়া ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি ও সম্পাদকক কে অবাঞ্ছিত ঘোষণা যৌতুকের দাবিতে মাগুরায় গৃহবধূকে পিটিয়ে হাত পা ভেঙ্গে দিয়ে হাসপাতালে ফেলে গেল স্বামী সাপাহারে আম গবেষণাগার ও সংরক্ষণাগার স্থাপনের দাবী আমচাষীদের শাহজাদপুরে কৃষকদের মাঝে কম্বাইন হারভেস্টার মেশিন বিতরণ মাহে রমজান উপলক্ষে জমিয়ত নেতা মাওলানা আফেন্দীর খাদ্য সামগ্রী বিতরণ আগৈলঝাড়ায় সাবেক শিক্ষক ও কবি অবিচল মিয়া মান্নান সরদারের কুলখানি অনুষ্ঠিত। আগৈলঝাড়ায় দীর্ঘ নয় মাস পরও উদ্ধার হয়নি নিখোঁজ ফিলিপ। লালমনিরহাটে নাভিলা পরিবহন সরকারি আদেশ অমান্য করায় ২ টি বাস আটক করেছে ট্র্যাফিক পুলিশ সিনিয়র সাংবাদিক জামাল হোসেনের রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া অনুষ্ঠিত
টাঙ্গাইলের ঘাটাইল পৌরসভার নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে ১২ কাউন্সিলরের আবেদন

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল পৌরসভার নিয়োগ কার্যক্রম স্থগিত চেয়ে ১২ কাউন্সিলরের আবেদন

রবিন তালুকদার, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

পৌরসভার কর্মচারী নিয়োগ প্রক্রিয়ায় অর্থবাণিজ্যের অভিযোগে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল পৌরসভা মেয়র শহিদুজ্জামান খানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করেছেন পৌরসভার ১২ কাউন্সিলর। মঙ্গলবার তারা জেলা প্রশাসকের কাছে নিয়োগ প্রক্রিয়া স্থগিত চেয়ে এক আবেদনে এই অভিযোগ করেন। লিখিত অভিযোগে জানা যায়, প্রয়োজন না থাকা সত্বেও মেয়র পৌরসভায় একজন সহকারি লাইসেন্স পরিদর্শক নিয়োগের প্রক্রিয়া গ্রহণ করেন।

বিষয়টি পৌর পরিষদের কোন কাউন্সিলর অবহিত নন। মেয়র অর্থ বাণিজ্যের লোভে তার নিকট আত্মীয় রাসেল মিয়া নামে এক ব্যক্তিকে নিয়োগ দিতে সকল প্রকার প্রক্রিয়া চালিয়ে আসছেন। আবেদনে কাউন্সিলরবৃন্দ আরো উল্লেখ করেন করোনা সংক্রমনের কারণে বর্তমানে পৌরসভার রাজস্ব আয় কমে গেছে। নতুন জনবল নিয়োগ করলে আর্থিক সংকট সৃষ্টি হতে পারে।

তাছাড়া মেয়র নিয়োগ প্রক্রিয়ার কোন বিষয়ে পৌর পরিষদ ও কাউন্সিলরবৃন্দকে অবগত করেন নাই এবং করোনা সংক্রমনের কারণে পৌর পরিষদের আনুষ্ঠানিক কোন সভাও করেন নাই। এ অবস্থায় নিয়োগ প্রক্রিয়া বন্ধ করা প্রয়োজন।

এ ব্যাপারে মেয়র শহিদুজ্জামান খান বলেন, সরকারি বিধি বিধান মেনেই নিয়োগ প্রক্রিয়ার কার্যক্রম চলমান রয়েছে। নিয়োগ বিষয়ে পৌর পরিষদের সভায় আলোচনার কোন প্রয়োজন নেই। উল্লেখ্য, আগামী ২৪ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

খবরটি শেয়ার করুন




somoyerbarta-rh6

© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

All Right Reserve Daily Somoyer Barta © 2020. 

 
Design by Raytahost