মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
সিরাজদিখানে যুবলীগ নেতার ছত্র ছায়ায় তৈরী হচ্ছে সন্ত্রাস বাহিনী দক্ষিণবঙ্গ সাংবাদিক ইউনিট ফেসবুক গ্রুপের পক্ষ থেকে সবাইকে শুভেচ্ছা। পবিত্র ঈদ-উল ফিতর উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রিয়াদ বেনাপোলে গরু চুরি করে জবাইয়ের সময় জনতার হাতে ধরা। ভূরুঙ্গামারীতে অগ্রিম ঈদুল ফিতর উদযাপিত গুইমারা রিজিয়িনের সেনাবাহিনী কর্তৃক মানবিক সহায়তা প্রদান মুন্সিগঞ্জ জেলা যুবদলের পক্ষ থেকে মুন্সিগঞ্জ জেলা বাসিকে ঈদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন বেনাপোল সীমান্ত থেকে ৫ টি পিস্তল ৭ রাউন্ড গুলি ও ১ টি ম্যাগজিন উদ্ধার ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আল আমিন নাজমুল শাহজাদপুরে ৩০ শিক্ষার্থীর মাঝে পবিত্র কোরআন বিতরণ নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধান নিয়ে প্রতারক চক্রের প্রতারণা। মানিকগঞ্জে এক হাজার দুঃস্থ মানুষের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছেন মিজানুর রহমান। মানিকগঞ্জের ভাড়ারিয়া ইউনিয়নের নৌকা প্রতিকে চেয়ারম্যান পদ প্রত্যাশী মোঃ আতিকুল ইসলাম শ্যামলের ঈদ উল ফিতরের শুভেচ্ছা। মানিকগঞ্জের জাগীর ইউনিয়নের ওয়ার্ড সদস্য পদ প্রত্যাশী মোঃ ছায়েদুর রহমানের ঈদ উল ফিতরের শুভেচ্ছা। মানিকগঞ্জে “মানুষের পাশে” সংগঠনের উদ্দ্যোগে মানবিক সহায়তা হিসেবে গবাদি পশু, সেলাই মেশিন, ও নগদ অর্থ প্রদান। মানিকগঞ্জে যুবলীগের পক্ষথেকে হাজারের অধিক পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ মানিকগঞ্জ পৌর যুবলীগ নেতা মোঃ মশিউর রহমান এর পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা মানিকগঞ্জ জেলা শ্রমিক লীগ নেতা নূর মোহাম্মদ খান এর পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী শিহাব হোসেন এর পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা ঘিওরে ২ হাজার দুস্থ পরিবারের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরণ করলেন – এমপি দুর্জয়
মুক্তার আলীর দ্বিতীয় বারে মেয়র হওয়া যেন ২১ বছরের রাজনৈতিক জীবনের সফলতা

মুক্তার আলীর দ্বিতীয় বারে মেয়র হওয়া যেন ২১ বছরের রাজনৈতিক জীবনের সফলতা

রবিউল ইসলাম,রাজশাহীঃ

আড়ানী পৌরসভার বর্তমান মেয়র মুক্তার আলী। তার পিতা মৃতঃ নইমুদ্দিন প্রাঃ, মাতাঃ মৃতঃ রফিজান বেওয়া। তিনি ১৯৭০ সালে ৮ মার্চ রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পিয়াদা পাড়া গ্রামে সম্ভ্রান্ত এক মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। ছোট বেলায় তিনি ছিলেন ডানপিটে স্বভাবের। ছাত্র অবস্থায় রাজনীতিতে আসেন মুক্তার। ২০০২ সালে অনেক নির্জাতনের স্বীকার হতে হয় তাকে। কিন্তু কিছুইতে হাল ছাড়েননি তিনি । সেই সময়ে আড়ানী ইউনিয়ন পরিশধ নির্বাচনে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হন মুক্তার আলী। তার পর আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয় নি তাকে।

আওয়ামী পরিবারে বেড়ে ওঠা মুক্তার আলী ২০০৬ সালে রাজশাহী জেলার তৎকালীন যুবলীগের সভাপতি আসাদুজ্জামান আছাদ এবং রাজশাহী জেলা পরিশধের সাবেক চেয়ারম্যান মরহুম ভুলু এবং স্থানীয় নেত্রী বৃন্দ মুক্তার আলী কে বাঘা উপজেলা যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব অর্পন করেন। ২০০৮ সালে পৌর নির্বাচনে আওয়ামীলিগের মনোনয়ন নিয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। সে সময় তিনি প্যানেল মেয়র এর দায়িত্বও পালন করেন। ২০১১সালের ৮ সেপ্টেম্বর মেয়র মিজানুর রহমান মিনু মারা যাওয়ার পর ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পালন করেন মুক্তার আলী। তার সততা এবং ন‍্যায়পরায়নতায় মুগ্ধ হয়ে পরবর্তীতে মাননীয় প্রধান মন্রী শেখ হাসিনা ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর পৌর নির্বাচনে পুনরায় মুক্তার আলীকে মনোনয়ন প্রদান করেন।

উক্ত নির্বাচনে বিএনপি’ র হেবি ওয়েট প্রাথীকে বিপুল ভোটে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন মুক্তার। আড়ানী পৌরসভার উন্নয়নে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্জ শাহারিয়ার আলম ভালোবাসার হাত বাড়িয়ে দেন। পরবর্তীতে তিনি আড়ানী পৌর আ’লীগ কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক পদের দায়িত্ব পান। শেখ হাসিনার রুপকল্প বাস্তবায়নে আড়ানী পৌরসভায় জনগণের পাশে দাঁড়িয়ে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছেন পৌর মেয়র মুক্তার আলী।

বিগত সময়ে উপজেলার প্রধান সড়ক ছাড়া আর কোন সড়কই পাকা ছিল না। বর্তমান সরকারের দ্রুত উন্নয়ন ছোঁয়ায় এ পৌরসভাটির প্রায় সকল রাস্তা পাকা করন কারা হয়েছে, বিদ্যুতের আলো পৌঁছে গেছে ঘরে ঘরে। এতে করে পাল্টে গেছে এ পৌর এলাকার মানুষের জীবন চিত্র। করোনাকালীন সময়ে শতভাগ মানুষের খাদ্য নিশ্চিত করতে সরকারি সহায়তার পাশাপাশি নিজ অর্থায়নে দিয়েছেন ত্রাণ সহায়তা। নিজের জীবন বাজী রেখে তার পৌর এলাকার জনগনের পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন জনতার এ নির্ভীক নেতা। ২০২১ সালের ১৬ জানুয়ারী আড়ানী পৌর নির্বাচনে মনোনয়ন বঞ্চিত হন মুক্তার আলী। তারপরও তিনি পিছপা হননি। জনপ্রিয়তাই তাকে সামনে ঠেলে দিয়েছে। তিনি যেমন অসহায়, দুস্থ, গরীব, এতিম দের পাশে দাঁড়াতেন, বাড়ীয়ে দিতেন অর্থ সহায়তার হাত। ঠিক তেমনি জনগনও মনে প্রাণে ভালোবাসতেন তাদের দানবীর এই নেতাকে।

বাজার ব্যবসায়িরা জানান,মুক্তার আলী মেয়র হওয়ার পর থেকে ব্যবসায়িদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি বন্ধ হয়েছে। ১৭০ টি চোলায় মদের ভাটি উচ্ছেদ সহ রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন হয়েছে। সবাই শান্তিতে ব্যবসা সহ বসবাস করতে পারছে। আর তাই মেয়র মুক্তার আলী কে পুনরায় মেয়র নির্বাচিত করতে ভালোবাসার টানে ঘর ছেড়ে মাঠে নামে হাজার হাজার নারী পুরুষ। ভোটের মাঠে জয় পরাজয়ের লড়াইয়ে প্রতিপক্ষের হামলা – মামলার স্বীকার হতে হয় এই নেতাকে। তাতেও তিনি বিচলিত হননি বরং জনশ্রোত বেড়েই চলেছে মেয়র মুক্তার আলীর পক্ষে।

অবশেষে সকল বাঁধা উপেক্ষা করে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে জয়ের মালা পরেছেন স্বতন্ত্র এ মেয়র প্রার্থী। ২১ বছরের জনপ্রতিনিধিত্বের বয়সে সফল ভাবে দ্বিতীয় বারের মতো মেয়ের নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। মেয়র মুক্তার আলীর হাজারো ভালো কাজের সাক্ষী শত প্রতিকুলতা ঠেলে অর্জিত এ বিজয়।

খবরটি শেয়ার করুন




somoyerbarta-rh6

© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

All Right Reserve Daily Somoyer Barta © 2020. 

 
Design by Raytahost