শুক্রবার, ১৪ মে ২০২১, ০১:১৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
পবিত্র ঈদ-উল ফিতর উপলক্ষে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রিয়াদ বেনাপোলে গরু চুরি করে জবাইয়ের সময় জনতার হাতে ধরা। ভূরুঙ্গামারীতে অগ্রিম ঈদুল ফিতর উদযাপিত গুইমারা রিজিয়িনের সেনাবাহিনী কর্তৃক মানবিক সহায়তা প্রদান মুন্সিগঞ্জ জেলা যুবদলের পক্ষ থেকে মুন্সিগঞ্জ জেলা বাসিকে ঈদের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন বেনাপোল সীমান্ত থেকে ৫ টি পিস্তল ৭ রাউন্ড গুলি ও ১ টি ম্যাগজিন উদ্ধার ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আল আমিন নাজমুল শাহজাদপুরে ৩০ শিক্ষার্থীর মাঝে পবিত্র কোরআন বিতরণ নিখোঁজ ব্যক্তির সন্ধান নিয়ে প্রতারক চক্রের প্রতারণা। মানিকগঞ্জে এক হাজার দুঃস্থ মানুষের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছেন মিজানুর রহমান। মানিকগঞ্জের ভাড়ারিয়া ইউনিয়নের নৌকা প্রতিকে চেয়ারম্যান পদ প্রত্যাশী মোঃ আতিকুল ইসলাম শ্যামলের ঈদ উল ফিতরের শুভেচ্ছা। মানিকগঞ্জের জাগীর ইউনিয়নের ওয়ার্ড সদস্য পদ প্রত্যাশী মোঃ ছায়েদুর রহমানের ঈদ উল ফিতরের শুভেচ্ছা। মানিকগঞ্জে “মানুষের পাশে” সংগঠনের উদ্দ্যোগে মানবিক সহায়তা হিসেবে গবাদি পশু, সেলাই মেশিন, ও নগদ অর্থ প্রদান। মানিকগঞ্জে যুবলীগের পক্ষথেকে হাজারের অধিক পরিবারের মাঝে ঈদ উপহার বিতরণ মানিকগঞ্জ পৌর যুবলীগ নেতা মোঃ মশিউর রহমান এর পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা মানিকগঞ্জ জেলা শ্রমিক লীগ নেতা নূর মোহাম্মদ খান এর পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী শিহাব হোসেন এর পক্ষ থেকে ঈদের শুভেচ্ছা ঘিওরে ২ হাজার দুস্থ পরিবারের মাঝে ঈদ বস্ত্র বিতরণ করলেন – এমপি দুর্জয় ঈদ উপলক্ষে মানিকগঞ্জ সরকারি দেবেন্দ্র কলেজ এইচ.এস.সি- ২০২১ ব্যাচ শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে ঈদ সামগ্রী বিতরণ। লালমনিরহাটে আদিতমারীতে অভ্যন্তরিন বোরো ধান ও চাল সংগ্রহের উদ্বোধন
বাঘায় বেড়েছে মাদক কার বারীর দৌরাত্ম, তান্ডবে অতিষ্ট এলাকাবাসী

বাঘায় বেড়েছে মাদক কার বারীর দৌরাত্ম, তান্ডবে অতিষ্ট এলাকাবাসী

রাজশাহী প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর বাঘা উপজেলা জুড়ে বেড়েছে মাদক কার বারীর দৌরাত্ম্য। মানুষ যখন ঘুমিয়ে পড়ে তখন শুরু হয় তাদের দৌড় ঝাপ। রাতভর চলে তাদের এই কারবার। বর্তমানে উপজেলার পাকুড়িয়া ও মনিগ্রাম ইউনিয়নে রয়েছে বেশ কিছু চিহ্নিত প্রভাবশালী মাদক সম্রাট । তাদের নামে একাধিক মাদক মামলা থাকলেও তারা প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে প্রায় প্রকাশ্যই পরিচালনা করে তাদের অবৈধ্য মাদক ব্যবসা। মাদক ব্যবসায়ীদের অবাধ চলাফেরা এবং তান্ডবে অতিষ্ট ও হুমকির মুখে এলাকাবাসী।

সম্প্রতি (৬ ফেব্রুয়ারি) রাত্রি আনুমানিক ৮ টার সময় মনিগ্রাম ইউনিয়নের রূপপুর মাটিপাড়া গ্রামের মালেক হোসেনের ছেলে স্বপন (৫০) এর ৬৫৫ পিস ভারতীয় অবৈধ্য ফেন্সিডিলের চালান প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে পদ্মা নদীর ঘাট থেকে তোলার সময়, কে বা কাহারা কেড়ে নেয়। তারপর থেকে শুরু হয় মাদক সিন্ডিকেটের তল্লাসি। সন্ধেহের বসে এলাকার বেশ কয়েক জন কে অভিযুক্ত করে বিভিন্ন সময় হুমকি প্রদর্শন করে আসছে এই মাদক ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেট সদস্যরা এমন অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অভিযোগের ভিত্তিতে সরজমিন গিয়ে জানাযায়, মাদক ব্যবসায়ী স্বপনের ৬৫৫ পিস ফেন্সিডিল কে বা কাহারা নিয়েছে তা সঠিক ভাবে না যেনেই গভির রাতে ৬/৭ টি মোটরসাইকেল যোগে প্রায় ১৩-১৪জন মাদক ব্যবসায়ী সহ মনিগ্রাম ইউপির সদস্য আব্দুল মান্নান ও কামরুল (প্রশাসনের সোর্স পরিচয় দানকারী) কে সাথে নিয়ে স্বপন (মাদক ব্যবসায়ী) একলাস নামের এক ব্যক্তির বাড়িতে আসে এবং অবৈধ্য মাল (ফেনসিডিল) গুলো ফিরিয়ে দিতে বলে। একলাস মাল নেয়নি বলে অস্বীকার করলে উপস্থিত মাদক ব্যবসায়ীরা তাকে হুমকি ধামকি প্রদর্শন করে চলে যায়। পরের দিন একলাস তার পারিবারিক মামলার কারণে পরিবারসহ রাজশাহী কোর্টে যান। কোর্টে অবস্থানকৃত সময়ে একটি অপরিচিত মোবাইল নাম্বার থেকে একাধিক বার ফোন দিয়ে শহরের আলাদা আলাদা স্থানে দেখা করতে বলেন। সর্ব শেষ বিকেলের বাড়ি ফেরার সময় ফোন করে বলা হয় মাল ফিরিয়ে না দিলে, খুন করে তাকে গুম করে দেওয়া হবে। একলাস ভয়পেয়ে পরেরদিন একটি অভিযোগ লিখে থানায় জমা দেয় এবং বাড়ি চলে আসে। সেই অভিযোগ এর খবর পাওয়ার পর মাদক সিন্ডিকেটের সদস্যরা ৭ থেকে ৮ টি মোটরসাইকেল যোগে প্রায় ১৭/১৮ জন প্রতি নিয়ত একলাসের এলাকায় ঘোরাঘুরি করে, এতে একলাসের ও তার পরিবার আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে। র‍্যাব পরিচয় দানকারী এক ব্যক্তি ফোন করে অবৈধ ভারতীয় পণ্য ফেন্সিডিল গুলো ফিরিয়ে দিতে বলে। প্রশাসনের সোর্স পরিচয় দানকারী কামরুল ও মাল ফিরিয়ে দিতে বলে অন্যথায় প্রশাসন দিয়ে হয়রানি করার হুমকি দেয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকাবাসীরা বলেন, মাদক ব্যবসায়ী দের এমন আচরন নতুন নয়, প্রায় তারা এমন করে। অবৈধ মালের জন্য এলাকায় এমন আতঙ্কিত পরিবেশ সৃষ্টি করাতে আমরা ভিসন ভাবে আতঙ্কিত। সেই সাথে তারা প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে,প্রশাসন দ্রুত পদক্ষেপ না নিলে এলাকায় বড় ধরনের ঝামেলার সৃষ্টি হওয়ার আশংকা করছেন তারা।

ভুক্তভোগী একলাস বলেন, আপনারা যে অভিযোগ শুনেছেন তা সঠিক। এই কাজ আমি করিনি। আমি আমার পরিবার নিয়ে আতঙ্কিত অবস্থায় আছি। ওরা যে কোন সময় আমার ক্ষতি করতে পারে। এ সময় তিনি প্রশাসনের কাছে আকুল আবেদন জানায়, প্রশাসন যেনো দ্রুত পদক্ষেপ নেয় এবং আমি সহ আমার পরিবারকে এই বিপদ থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করেন।

খবরটি শেয়ার করুন




somoyerbarta-rh6

© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

All Right Reserve Daily Somoyer Barta © 2020. 

 
Design by Raytahost