রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ০৩:১৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কালের বিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে মাটির ঘর টাঙ্গাইল ৪৪০ পিস ইয়াবাসহ ১ নারী গ্রেফতার সিরাজদিখানে ব্যবসায়ীকে হত্যার হুমকির অভিযোগ লালমনিরহাটে দেশীয় অস্ত্রসহ ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া বাংলা আমার গৈলার প্রবীন শিক্ষক (অবঃ) কবি অবিচল মান্নান সরদারের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন। স্কাউটিংয়ে প্রথম ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করলেন বাংলাদেশের ঈসা মোহাম্মদ তোমাতে আমি বড়লেখা নারী শিক্ষা কলেজের অধ্যক্ষ এ কে এম হেলাল উদ্দিন। পত্নীতলা উপজেলা কবি পরিষদ সভাপতি গুলজার, সাধারণ সম্পাদক ইখতিয়ার শাহজাদপুরে বাঁশের সাঁকোয় ২৫ গ্রামের ৫০ হাজার মানুষের ঝূঁকিপূর্ণ চলাচল। বেনাপোলে ভারতীয় গাঁজাসহ মাদক বিক্রেতা আটক অভাবের কারণেই কি মিজানুরের মেডিকেলে পড়ার সুযোগ হবে না? লালমনিরহা জেলায় চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগ ॥ ভুক্তভোগীকে হুমকি বেনাপোলে সাংবাদিকদের উপর সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলা,থানায় অভিযোগ দায়ের আগৈলঝাড়ায় ঢিলেঢালা লকডাউন, নেই সামাজিক দূরত্ব, নেই স্বাস্থ্যবিধি। করোনা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। সন্ত্রাসী হামলার শিকার সাংবাদিক তৌহিদ কোভিড আক্রান্ত রোগীকে সহকারী পুলিশ কমিশনার(ট্রাফিক) এর প্লাজমা দান। মানিকগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগ সদস্য ত্রয়োর উদ্দোগ্যে মাস্ক বিতরন ।
সাপাহারে অবৈধভাবে লাইসেন্স বিহীন চলছে ২২টি স’মিল!

সাপাহারে অবৈধভাবে লাইসেন্স বিহীন চলছে ২২টি স’মিল!

সাকিব হোসেন, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:

নওগাঁর সাপাহারে যত্রতত্র অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে লাইসেন্স বিহীন স’মিল। উপজেলায় বিভিন্ন স্থানে গড়ে উঠেছে এই ধরণের অবৈধ স’মিল গুলো। যার ফলে জনস্বাস্থ্য ও পরিবেশের উপর ব্যাপক ভাবে ক্ষতির প্রভাব পড়ছে।

স’মিলে কাঠ জোগান দিতে গিয়ে অনেক সময় উজাড় হচ্ছে বন বিভাগের সরকারি গাছ। যার কারনে মোটা অংকের রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, এ উপজেলায় সদর সহ বিভিন্ন এলাকায় যত্রতত্রভাবে এমনকি প্রধান সড়কের কোল ঘেঁসে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসানো হয়েছে মোট ২২ টি কাঠ ফাঁড়ার স’মিল। তার মধ্যে একটি স’মিলেরও নেই বৈধ কোন কাগজপত্র। শুধুমাত্র লাইসেন্সের আবেদন করেই বিনা লাইসেন্সে চালানো হচ্ছে এলাকার এই স’মিলগুলো।

এছাড়াও প্রধান সড়কের পাশে কাঠের গুঁড়িগুলো ফেলে রাখার ফলে জনদূর্ভোগ চরমে উঠেছে। শুধু তাই নয়, খড়ি কিনতে বা নামাতে আসা গাড়ীগুলো রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকার ফলে যানবহন চলাচলে চরম বিঘ্ন ঘটছে বলে জানান এলাকাবাসীরা।

সকাল ৬টা থেকে সন্ধা ৬টা প্রর্যন্ত স’মিল পরিচালনা করার নিয়ম থাকলেও কেউ কেউ রাতের আঁধারে কাঠ ফাঁড়ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে উপজেলা বন কর্মকর্তা বারীর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, উপজেলাতে মোট ২২টি স’মিল আছে । যার মধ্যে ১৫/১৭ টির নামে মামলা চলমান রয়েছে। বাঁকী যে কয়টি রয়েছে উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশনা সাপেক্ষে তাদের স’মিল সিলগালা করার জন্য প্রস্তুতি চলছে।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কল্যাণ চৌধুরীর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমরা অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিভিন্ন সময় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেছি। তবে তাদের বিষয়ে আইনী প্রক্রিয়ায় ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

খবরটি শেয়ার করুন




somoyerbarta-rh6

© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

All Right Reserve Daily Somoyer Barta © 2020. 

 
Design by Raytahost