বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৪:২০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বড়লেখায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত আব্দুল বাছিতের পরিবারের পাশে নিসচা লালমনিরহাটের মিজানুর রহমানের মেডিকেলে পড়ার দায়িত্ব আতাউর রহমান প্রধান নড়াইলে ব্যবসায়ীকে গুলি অস্ত্রসহ যুবক গ্রেফতার আগৈলঝাড়ায় সর্বাত্মক কঠোর লকডাউন পালিত- ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা। মানবিক বাংলাদেশ সাপাহার উপজেলা শাখার মাস্ক বিতরন। টাংগাইলের সফল নারী উদ্যোক্তা “পল্লবী পাল” তালামীযে ইসলামিয়ার কেন্দ্রীয় পরিষদের অভিষেক সম্পন্ন আগৈলঝাড়ায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা কামনায় মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠিত। নড়াইলে ব্যবসায়ীকে গুলির ঘটনায় জড়িত আরো এক আসামী গ্রেফতার বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় (পঞ্চম শ্রেণি) লালমনিরহাটে অন লাইনে সাংবাদিক দের প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের পরিচিতি সভা সাপাহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ সেন্ট্রাল অক্সিজেন সরবরাহের উদ্বোধন টুঙ্গিপাড়ায় বাবুল শেখের মাস্ক বিতরণ। দেশবিরোধী অপশক্তির বিরুদ্ধে মাঠে আছেন- টিপু কলোড়া ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি ও সম্পাদকক কে অবাঞ্ছিত ঘোষণা যৌতুকের দাবিতে মাগুরায় গৃহবধূকে পিটিয়ে হাত পা ভেঙ্গে দিয়ে হাসপাতালে ফেলে গেল স্বামী সাপাহারে আম গবেষণাগার ও সংরক্ষণাগার স্থাপনের দাবী আমচাষীদের শাহজাদপুরে কৃষকদের মাঝে কম্বাইন হারভেস্টার মেশিন বিতরণ মাহে রমজান উপলক্ষে জমিয়ত নেতা মাওলানা আফেন্দীর খাদ্য সামগ্রী বিতরণ আগৈলঝাড়ায় সাবেক শিক্ষক ও কবি অবিচল মিয়া মান্নান সরদারের কুলখানি অনুষ্ঠিত।
নাসিমা বেগম ও তার মেয়ের খুটির জোর কোথায়

নাসিমা বেগম ও তার মেয়ের খুটির জোর কোথায়

আগৈলঝাড়া প্রতিনিধি মনজুর লিটন

আগৈলাঝারা উপজেলাধীন গৈলা ইউনিয়নের দক্ষিণ শিহিপাশা গ্রামে। গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া থেকে আগত হারুনুর রশিদ ও তাঁর পরিবারবর্গ ০৮ শতাংশ জমি ক্রয় সুবাদে বসবাস করে আসছিল। কিন্তু হারুন-অর-রশিদের স্ত্রী ও কন্যার কার্যকলাপে এলাকার সবাই অতিষ্ঠ। হারুন অর রশিদ এর স্ত্রী নাসিমা বেগম ও কন্যা রাবেয়া বেগম ধরাকে সরা জ্ঞান করে না। তারা কথায় কথায় মানুষকে জেলের ভাত খাওয়াবে বলে হুমকি দেয়। কথায় কথায় হুমকি দেয় তিনি প্রধানমন্ত্রী এলাকার লোক।

এই নাসিমা বেগম এবং তার পরিবার বীর মুক্তিযোদ্ধা একেএম মজিদ আলীর পুত্রবধূ পারভিন আক্তার কে অনেক মারধোর করে। পারভিন আক্তার এর পরিবার বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন মামলা নাম্বার জি আর ১৪০/২০. এরপর নাসিমা বেগম পরিবার ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের বিরুদ্ধে কাউন্টার মামলা করা হয়. যাহার মামলা নাম্বার সি আর ৭৩/২০. উক্ত সিআর মামলা হাজিরা দিতে গেলে নাসিমা বেগম ও রাবেয়া বেগম সহ সবাই, এমদাদ ফকির, রাহাত ফকির, ফাহিমা বেগম, পারভীন বেগমকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। পুলিশ ও অন্যান্যরা নীরবে দাঁড়িয়ে ছিল।

জনমনের প্রশ্ন কোটের ক্যাম্পাসের ভিতর দাঁড়িয়ে এ ধরনের ব্যবহার করার সাহস নাসিমা বেগম ও রাবেয়া বেগম পেল কোথা থেকে। তাদের খুটির জোর কোথায়। এলাকাবাসী উক্ত নাসিমা ও রাবেয়া পরিবার থেকে মুক্তি চায় এবং এই ধরনের দুঃসাহসিক ব্যবহারের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছে।

খবরটি শেয়ার করুন




somoyerbarta-rh6

© স্বর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।

All Right Reserve Daily Somoyer Barta © 2020. 

 
Design by Raytahost